ঠাকুরগাঁওয়ে গোলিমবাবু বাজারে জলা বদ্ধতা

0
709

হাসিব,ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ঃ সামান্য বৃষ্টিতেই রাস্তয় দেখা দেয় জলাবদ্ধতা ও কাদা মাটি দিয়ে একাকার অবস্থা। 

এমটাই দেখা গেছে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা ১৭ জগন্নাথপুর ইউনিয়নের চন্ডিপুর গ্রামের খোচাবাড়ি-চকহলদি  রাস্তাটির গলিম বাবু বাজারে। বাজারের  মেইন পয়েন্টে এমন বেহাল অস্থা, যদিও এটি পাকা সড়ক।
আজ   বুধবার  (১৮ সেপ্টেম্বর) সরজমিনে গিয়ে দেখাযায়, বাজারের দক্ষিণে ফ্র্যাক্সিলোড বাবুর দোকানের সামনে থেকে মসজিদ পর্যন্ত এ কাদামাটি ও পানি।
সামান্য বৃষ্টিতে চলাচলের অনুপযোগি,এটি একটি  জনবহুল রাস্তা। প্রতিনিয়ত চলাচল করে ছোট-বড় যানবাহন। বিশেষ করে এ বাজারেই একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। ঔ বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা এ পানি কাদামাটি মাড়িয়ে চলাচল করে। ঐ বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী , মামুন,রাকিব, বর্ষা, মাহি বলে,একদিন বৃষ্টি হলে ২-৩ দিন পানি থাকে আবার পাশ দিয়ে কাদা হয়ে যায়।এর উপর দিয়েই যাতায়াত করতে হয় আমাদের। মাঝেমাঝে দোকানের বারান্দা দিয়েও যেতে হয়।
এখানকার পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা নেই। এটি যেন দেখার কেউ নেই। যদিও এই বাজারে স্থানিয় নেতা কর্মীর  অভাব নেই।
সামান্য বৃষ্টিতে এমন চলাচলের  অনুপযোগি হওয়ায় এলাবাসি ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।
এক হাটুরে বলেন, এ বাজারে সাপ্তাহে তিনদিন হাট বসে, আর এভাবেই পুরো বর্ষার মৌসুমে কাদা-পানি মাড়িয়ে আমাদের চলাচল  করতে হয়।
এছাড়া এ জলাবদ্ধতা এটি একটি রাস্তার মোরে,প্রাই সময় ঘটে ছোটখাটো দুর্ঘটনা, যে কোন সময় ঘটতে পারে বড় কোন দুর্ঘটনা। এমন টাই বলেন, ওখানকার এক মুদি দোকানদার। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আর এক দোকানদার বলেন, এ সমস্যা চেয়ারম্যানকে   ২ দিন বলা হয়েছে, এখানে আসছিলেন দেখানো হয়েছে। তিনি বলছেন বাজেট নেই তাই কিছু করার নেই। এসময় স্থানিয় একজন একই কথা বলেন। তিনি বলেন, আমিও চেয়ারম্যানকে বলে একই উত্তর পেয়েছি।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে, স্থানিয় মেম্বার  মোঃ শফিকুল ইসলাম বলেন, আপাদত কোন বাজেট নেই।পরে বাজেট আসলে চেয়ারম্যানের সাথে পরামর্শ করে  একটা ব্যবস্থা করবো।
এ বিষয়ে আরও জানতে চাইলে,  ১৭ নং জগন্নাথপুর ইউ পি চেয়ারম্যান মোঃ আলাল উদ্দিন আলাল মাস্টার বলেন,বর্ষা দিনে পানি লেগেই থাকতে পারে, তবে এবিষয়ে কেউ আমাকে কিছু বলেনি, আমি জানিনা।
তিনি এটা আগে   সত্য মিথ্যা যাচাই করতে চেয়েছেন, পরে ব্যবস্থা নিবেন।
watch price in bangladesh

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here