দিল্লি সফর বাতিলের পর ভারতের নরম সুর

0
124

দিল্লি ডায়ালগ ও ইন্ডিয়ান ওশান ডায়ালগ উপলক্ষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনের ভারত সফর হঠাৎ করেই বাতিল করা হয়েছে। এ নিয়ে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রাভিশ কুমার বলেছেন, এই সিদ্ধান্ত উত্তর-পূর্ব ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধন বিলের বিরুদ্ধে চলমান বিক্ষোভের সঙ্গে সম্পর্কিত নয়।

বৃহস্পতিবার ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আউটলুক এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে। রাভিশ কুমার বলেন, শেখ হাসিনার সরকারের অধীনে বাংলাদেশ ধর্মীয় নিপীড়ন হচ্ছে বলে দাবি করেনি ভারত।

এদিকে ১২ থেকে ১৪ ডিসেম্বর ভারত মহাসাগর সংলাপে উপস্থিত ও ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস. জয়শঙ্করের সঙ্গে এ কে আব্দুল মোমেনের বৈঠক করার কথা ছিল।

এর আগে আব্দুল মোমেন বলেছিলেন, ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বাংলাদেশে ধর্মীয় নিপীড়নের যে অভিযোগ করেছিলেন তা অসত্য। তিনি আরও বলেছিলেন, যে-ই ভারত সরকারকে এই তথ্য দিয়েছে, তা ভুল।

এই বিষয়ে রাভীশ কুমার বলেন, মনে হচ্ছে বোঝাপড়ায় কোনও ঘাটতি তৈরি হয়েছে। আমরা আগেই ব্যাখ্যা করে বলেছি যে, বাংলাদেশের বর্তমান সরকারের অধীনে কোনও ধর্মীয় নিপীড়ন হচ্ছে না। বাংলাদেশ থেকে যেসব অভিবাসী শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় চেয়েছেন তারা ধর্মীয় কারণে নিপীড়ন ও নির্যাতনের শিকার হয়েছেন সামরিক এবং বাংলাদেশের পূর্ববর্তী সরকারের আমলে।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এই মুখপাত্র আরো বলেন, আমার আরও স্বীকার করেছি এবং সচেতন যে, বাংলাদেশের বর্তমান সরকার সংবিধান অনুসারে দেশটিতে বসবাসরত সংখ্যালঘুদের উদ্বেগ নিরসনে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে।

অমিত শাহ বলেছিলেন, বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শেখ মুজিবুর রহমানের শাসনামলে বাংলাদেশে কোনও ধর্মীয় নিপীড়ন হয়নি। তিনি সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার নেতৃত্বাধীন বিএনপি সরকারকে আক্রমণ করেছিলেন। বিএনপি শাসনামলে হিন্দু নারীদের সংঘবদ্ধ ধর্ষণ এবং হিন্দুদের বাড়ি ও মন্দির ভাঙার ঘটনা তুলে ধরে তিনি এই সমালোচনা করেন।

watch price in bangladesh

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here