রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় যেসব খাবার

0
111

শীতকালে রোগ-বালাই বেশি হয়। শরীর নাজুক হয়ে পড়ে।এজন্য শীতকালে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে শীতকালীন শাক-সবজি খাওয়ার বিকল্প নেই। এছাড়া শীতে টকদইও খুব উপকার দেয়। সবার আগে চাই পুষ্টি। কিন্তু অনেকের শাকসবজিতে মন ভরে না। ভাজাভুজি, জাঙ্ক ফুডের দিকে নজর দেয়। এতে স্বাস্থ্য খারাপ হওয়ার দিকে পা বাড়ায়। পরবর্তীতে এসব খাবারই জীবন-মরণের ঝুঁকিতে নিয়ে যায়।এজন্য এসব পরিহার করে টাটকা শাকসবজি ও ফলমূল খেতে হবে।

শীতকালে আমাদের দেশে প্রচুর শাকসবজি ও ফলমূল পাওয়া যায়। এসব বেশি বেশি করে খাওয়া দরকার যা রোগ প্রতিরোধ শক্তি বাড়াবে। ভিটামিন সি রোগের সঙ্গে লড়াই করার ক্ষমতা বাড়ায়। একই সঙ্গে মেটায় পুষ্টির ঘাটতি।

কনকনে শীতে শরীর ঠিক রাখবে যেসব খাবার:

ফল ও সবজি

মৌসুমী সব ফল ও সবজিতে থাকে রোগ প্রতিরোধের যাবতীয় উপাদান। থাকে ভিটামিন, মিনারেলস। যা শরীরকে সুস্থ রাখে।পুষ্টির যোগান দেয়। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে বেশি করে খান ভিটামিন এ এবং ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ফল। পেয়ারা, কমলালেবু, পেঁপে, বেরি, কুমড়ো, পেঁয়াজ, সবুজ পাতাওয়ালা সবজি খান বেশি করে।সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হোন।

টকদই

রোগ প্রতিরোধে টকদই দারুণ উপকারি। এর মধ্যে থাকা অ্যান্টি-ফাংগাল উপকরণ সর্দি-কাশি-জ্বরের মতো সংক্রমণ থেকে বাঁচায়। হজমের সমস্যা দূর করে। এর মধ্যে থাকা ভিটামিন সি হাড়-দাঁত মজবুত করে।

প্রোটিন

প্রাণিজ প্রোটিন নিয়মিত খেলে পুষ্টির ঘাটতি মেটে। অ্যামাইনো অ্যাসিড পুষ্ট করে শরীরের কোষ। তাই মাছ, চিকেন, চিজ, ডিম, দুধ ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খাওয়া দরকার। সঙ্গে নিরামিষ জাতীয় খাবার যেমন সয়াবিন, ছাতুর নানা পদ খেতে পারেন।

বাদাম

আখরোট আর আমন্ড ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিডে পরিপূর্ণ। ফুসফুসের সংক্রমণ থেকে বাঁচায় এর মধ্যে থাকা গুড ফ্যাট। খাবারের মেনুতে নিতে পারেন এই দুই বাদাম।

মশলা

দেশীয় মশলা যেমন রসুন, আদা, হলুদে প্রচুর প্রাকৃতিক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আছে। যা শরীরকে জীবাণুমুক্ত করে সহজেই। সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচায়। বাড়ায় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা।

watch price in bangladesh

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here