দুই দিন ধরে পড়ে আছে বাবার লাশ, দাফনে বাধা দিচ্ছে ছয় মেয়ে

0
112

বাবা মারা গেছেন, কিন্তু তার দাফন হচ্ছে না। এ কাজে বাধা হয়ে দাঁড়ালো ছয় মেয়ে। তাদের দাবি একটাই সম্পত্তি বন্টন। তা না হলে বাবার লাশ দাফন করতে দেয়া হবে না। এমন কাণ্ডজ্ঞানহীন কাজই করছেন এই ছয় মেয়ে।

ঘটনাটি কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার চিওড়া ইউনিয়নের কবরুয়া গ্রামের। এই বাবার নাম নুরুল হক ভূঁইয়া। তার দুই সংসার। প্রথম সংসারের ছয় মেয়েই লাশ দাফনে বাধা হয়েছে দাঁড়িয়েছে। তাদের মতো অটল সিন্ধান্তেই আছেন দ্বিতীয় সংসারের সন্তানরা। মারা যাওয়ার দুই দিন পার হলেও লাশ দাফনে এগিয়ে আসছেন না কেউই। আপন ঘরেই পড়ে আছে মরদেহ। মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত লাশ দাফন করা হয়নি।

জানা গেছে, গত শুক্রবার ভোরে নিজ ঘরেই ব্রেন স্ট্রোক করেন নুরুল হক ভূঁইয়া। এরপর তাকে নেয়া হয় ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। পরে সোমবার সকাল ৯টায় সেখানে তার মৃত্যু হয়। লাশ বাড়িতে নেয়ার পর শুরু হয় জটিলতা। পূর্ব বিরোধের জেরে লাশ দাফনে এগিয়ে আসছেন না কেউই।

এ বিষয়ে প্রতিবাদ করলে প্রথম স্ত্রী ও তার কন্যাদেরকে হুমকি প্রদর্শন করে দ্বিতীয় স্ত্রীর ছেলে-মেয়েরা। পরে নুরুল হক ভুঁইয়ার প্রথম স্ত্রী বাদী হয়ে সম্পত্তির ন্যায্য হিস্যা দাবি করে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বরাবর আবেদন করে। স্থানীয়ভাবে বিষয়টির নিস্পত্তি করা হলেও বাড়িতে এসে ২য় স্ত্রীর সন্তানরা আবারো সম্পত্তি থেকে তাদের বঞ্চিত রাখে। সমস্যা সমাধান করার আগেই নুরুল হক ভুঁইয়া সোমবার সকালে মৃত্যু হলে তার সম্পত্তির ন্যায্য হিস্যার দাবিতে গ্রামবাসীকে সাথে নিয়ে লাশ দাফনে বাধা প্রদান করে প্রথম স্ত্রীর ছয় মেয়ে সন্তান। এ সময় দ্বিতীয় স্ত্রীর সন্তানরা প্রথম স্ত্রীর কন্যাদেরকে সম্পত্তি নিতে অস্বীকার করে।

প্রবাস থেকে নুরুল হক ভুঁইয়ার দ্বিতীয় স্ত্রীর ছেলে নুরুল আফছার মোবাইল ফোনে গ্রামবাসীকে বলেন, বাবার লাশ দাফনের দরকার নেই, আমরা কাউকে এক কড়া সম্পত্তিও দেব না।

watch price in bangladesh

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here