নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের নির্দেশে উদ্বোধনী নামফলক ভেঙে দেওয়ার অভিযোগে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠছে কাচঁপুরের জনগন

0
61

সোনারগাঁ উপজেলাধীন কাচঁপুর ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের বেহ্যকৈর মাদ্রাসা হইতে হাজী বাড়ী পর্যন্ত আর সি সি রাস্তার উদ্বোধনী নামফলক ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে।

ঘটনার বিবরনে জানা যায় গতকাল মঙ্গলবার ১৩ এপ্রির দুপুরের দিকে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেনের নির্দেশে তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে কাচঁপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ মোশারফ ওমরের নাম ফলক ভেঙ্গে দেয়। এ ব্যাপারে কাচঁপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোশারফ ওমর বলেন গতকাল সকালে জেলাপরিষদ চেয়ারম্যান আনোর হোসেন সাহেব আমাকে ফোনকরে বলেন যে জেলা পরিষদের অর্থায়নের কাজের উদ্বোধনী নামফলকে আমার নাম ব্যাবহার না করে তুমার নাম ব্যাবহার করেছ কেনো? আমি বল্লাম লিডার আমিতো নিয়ম অনুযায়ী করেছি। জেলা পরিষদের অর্থায়নে হোক বা স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ের অর্থায়নেই হোক ইউনিয়নের ছোট ছোট কাজের ক্ষেত্রে ইউপি চেয়ারম্যানের তদারকিতে হয় এবং নামফলকে ইউপি চেয়ারম্যানের নাম থাকে। বড় বড় কাজের ক্ষেত্রে মন্ত্রী বা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অথবা উপজেলার চেয়ারম্যানরা উপস্থিত থেকে নাম ফলক উদ্বোধন করেন সেখানে একক বা যৌথ ভাবে তাদের নাম থাকে । এখানেতো আমি দোষের কিছু দেখছি না। তারপরেও আপনি চাইলে যৌথভাবে আপনার নাম লিখে এটা পাল্টেদেই এবং একসাথে এই কাজের উদ্বোধন করি। জবাবে তিনি আমাকে দেখে নেবে এই করবে সেই করবে নানা উল্টাপাল্ট হুমকি দিয়ে ফোন কেটে দিলেন ।

এর ঘন্টা দুয়েকের মধ্যেই তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে আমার নামের নাম ফলক ভেঙ্গে দিলেন। অথচ নাম ফলকে জেলা পরিষদের অর্থায়নে কথাটি স্পষ্টভাবেই লেখা ছিল তারপরেও তিনি (আনেয়ার হোসেন) তার পালিত গুন্ডা বাহিনী দিয়ে এই ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছেন । কাচঁপুর ইউপির চেয়ারম্যান মোশারফ ওমর বলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের এই ঘৃনীত কর্মকান্ডের প্রতিবাদ জানাই। নারায়ণগঞ্জ, সোনারগাঁ, কাচঁপুর বাসির কাছে এবং স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার চাই। মোশারফ চেয়ারম্যান আরো বলেন কাচঁপুর বাসি আমাকে তাদের প্রাণের চেয়েও বেশী ভালবাসে তারা এর প্রতিবাদে রাস্তায় নামতে চেয়েছিল আমি বারোন করেছি কারণ আমি আমার দলের বিরুদ্ধে যেতে চাই না তবে, দলীয়ভাবে এর বিচার অবশ্যই চাই।

এই ঘটনায় কাচঁপুরে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে এলাকার জনগন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের এই অপকর্মের বিরুদ্ধে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠছে যেকোন মুহুর্তে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটার আশংকা করছে এলাকার সাধারন মানুষ।

watch price in bangladesh

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here