ঠাকুরগাঁওয়ে লিচু গাছে আম, দেখতে উৎসুক জনতা

14
321

 

রিপোর্টার হাসিবুল ইসলাম হাসিব : লিচু গাছে আম অবাক হলেও সত্য। প্রাকৃতিক এমন দৃশ্য দেখতে উৎসুক জনতা। ঠাকুরগাঁওয়ে আব্দুর রহমান নামে এক ব্যক্তির বসত বাড়ির আঙ্গিনায় রোপনকৃত লিচু গাছে ধরেছে আম । এমন খবর জেনে স্থানীয়রা ছুটছেন তা এক নজর দেখার জন্য। প্রাকৃতিকভাবে লিচু ফলের সাথে আমের ফলন হওয়ায় সবাইকে অবাক করেছে।

জেলা সদরের ছোট বালিয়া মুটকি বাজার কলোনীপাড়ায় আব্দুর রহমানের বাড়ি আঙ্গিনায় রোপনকৃত লিচু গাছে এমন দৃশ্য দেখামেলে ।

আজ ১৯ এপ্রিল সোমবার স্থানীয় সুত্রে জানাগেছে , গাছের মালিক মুখে মুখে বিষয়টি সবাইকে বলতো কিন্তু সবাই মনে করতো হয়তো লিচু গাছে কলম করে আম গাছের চারা রোপন করেছে। কিন্তু তা নয়। আব্দুর রহমানের কথা শুনে এলাকার একাধিক ব্যক্তি তা দেখতে গিয়ে অবাক হন। সত্যিই লিচু গাছে লিচু ফলনের সাথে তরতাজা আম ঝুলছে। এ নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্য শুরু হয়েছে। কিছুক্ষন পর পার ওই ব্যক্তির বাসায় লোকজন ভীর করছে তা দেখতে।লকডাউনের মাঝেই বিভিন্ন এলাকার নানান বয়সের নারী-পুরুষ বাইসাইকেল, মোটরসাইকেল, রিক্সা-ভ্যান ও অটোগাড়িসহ বিভিন্ন বাহনে সেখানে ভিড় করছেন। সাথে ছবি তুলতে, ভিডিও করতে ব্যস্ত হচ্ছেন সবাই।
আর এদিকে লিচু গাছের মালিক আব্দুর রহমান তার বিবরণ বলতে বলতে হাঁপিয়ে উঠছেন। বিষয়টি এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ব্যপক ছড়িয়ে পড়েছে।

এ বিষয়ে গাছের মালিক আব্দুর রহমান জানান, ৫ বছর আগে বসত বাড়িতে লিচু গাছের চারাটি রোপন করি। পরিচর্চায় ৩ বছরের মাথায় ফল আসে। কিন্তু এবার লিচু গাছে আশানুরুপ মুকুল আসে। এরই মধ্যে মুকুল থেকে লিচু ফল বড় হতে থাকে। গাছ পরিচর্চা করতে গিয়ে চোখে পরে লিচু সাথেই এই ডালে একটি আমও হয়েছে। পরে বিষয়টি আশপাশে লোকদের জানালে তা ছড়িয়ে পরে। এখন এলাকার সবাই তা দেখতে ভীর করছে। তবে গাছে শুধু একটি আমই ধরেছে। এর বেশি চোখে পরেনি।তিনি বলেন এখানে কোন কলম ব্যবহার করা হযনি।
অপর দিকে এবিষয়ে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপপরিচালক কৃষিবিদ আবু হোসেন বলেন, আমাদের লোক সেখানে গিয়েছে, পরিদর্শন করেছে। তবে এটা অবাক হয়ার মতো বিষয়, কারন দুইটা দুই ফ্যামিলির গাছ, পরাগায়নও সম্ভব না, আর এটা কলম ছাড়া সম্ভব নয়। এটা আমরা দেখতেছি, তবে এটা ভালোভাবে জানতে ৮-১০ দিন সময় লাগবে।

watch price in bangladesh

14 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here