মাদারীপুরের শিবচর বাংলাবাজার ফেরিতে ভিড়ের চাপে শ্বাসরুদ্ধ হয়ে পাঁচজনের এবং জ্যামে আটকাপড়ে এ্যাবুলেন্মে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে।

4
104

শেখ জনি ইসলাম : ঈদ ছুটি শুরু হয়েছে। শুরু হয়েছে করোনা সংক্রমণের শঙ্কা সর্বত্র। আর এই করোনা ভয়াবহতার মধ্যেই ঈদ। একদিকে ছুটি। অন্যদিকে আজব কায়দার লকডাউন। এরই মধ্যে বাড়ি ফেরা। নাড়ির টানে ছুটে যাওয়া। পরিবার পরিজনকে কাছে পাওয়া। সবই আবেগের দোহাই। কিন্তুর সবার আগে তো জীবনের নিরাপত্তা।

কিন্তু নেই কোন নিরাপত্তা নেই কোন সুষ্ঠ ব্যাপস্থাপনা। আজ বাড়ী ফিরতে গিয়ে ফেরিতে ভিড়ের চাপে শ্বাসরুদ্ধ হয়ে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। আশংকাজনক অবস্থায় আটজনকে নেওয়া হয়েছে হাসপাতালে। আর দুজনের  মৃত্যু হয়েছে এ্যাম্বুলেন্সে মানুষের ভিড়ে ফেরীতে উঠতে না পারার কারনে । যদি সময় মতো এ্যাম্বুলেন্স দুটি ফেরিতে উঠতে পারতো যদি পারতো সময় মতো হাসপালে পৌছতে তাহলে হয়তো বেঁচে যেতে দুটি জীবন। এই কদিন আগেও এখানে ট্রলার দুর্ঘটনায় ২৬ জনের প্রাণহানি হয়েছে। আর আজ দুপুরের মৃত্যু তো মানুষের দিকবিদিক হয়ে বাড়ির ফেরার চেষ্টায়। কি হতো যদি পরের ফেরিতে, কিছুটা হালকা হলে বাড়ি ফিরতেন। তাহলে হয়তো এই মর্মান্তিক মৃত্যু এড়ানো যেতো। একবার ভাবুন, এই পরিবারগুলোর ঈদ কতোটা দুঃখ নিয়ে কাটবে। আর যার প্রিয়জন চলে গেছেন তিনিই বুজতে পারছেন কি ক্ষতি হয়েছে।

এই ভিড় আর ঠেলাঠেলি করে কেন আমরা বাড়ি ফিরছি? একে তো তীব্র স্বাস্থ্যঝুঁকি। এই গাদাগাদি অবস্থায় সকলেই করোনার নিরাপদ বিনিময় করছি। আর অনাকাঙ্খিত দুর্ঘটনার আশঙ্কা তো রয়েছেই। যেমনটা আজ ঘটলো বাংলাবাজার ঘাটে। এমনটি আর দেখতে চাই না।

চাই সঠিক সিদ্ধান্ত সঠিক ব্যাবস্থাপনা নইলে হারাতে হবে আরো অনেক কিছু।
watch price in bangladesh

4 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here