খুলনায় ৯মাস ধরে স্মাট কার্ড বিতরণ, কবে কোন ওয়ার্ডে ১৮ জুলাই উদ্বোধন ২০ জুলাই বিতরণ

0
649

রায়হান খুলনা: আগামী ২০ জুলাই থেকে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বা স্মাট কার্ড হাতে পাবেন খুলনা মহানগরীর ভোটাররা। ওই দিন সকাল ১০টা থেকে নগরীর ২১নং ওয়ার্ডে হ্যানে রেলওয়ে মাধ্যমিক স্কুলে এই কার্ড বিতরণ করা হবে। খুলনার প্রথম সৌভাগ্যবান ভোটার হবেন ওয়েস্ট মেকট রোড, কেডি ঘোষ রোড, ক্লে রোড, কোর্ট রোড এবং আপার যশোর রোড এলাকার ভোটাররা। কারণ প্রথম দিনে ২০ জুলাই এই ৪টি সড়কের ২ হাজার ১৩৫ জন ভোটার স্মাট কার্ড হাতে পাবেন। তবে এর দুদিন আগে ১৮ জুলাই বেলা ১১টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে স্মাট কার্ড বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধন করবেন নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব) শাহাদাত হোসেন। ওই দিন নগরীর গণমান্য ব্যক্তিদের কার্ড দেওয়া হবে। জেলা নির্বাচন অফিস থেকে জানা গেছে, ২০ জুলাই থেকে স্মাট কার্ড বিতরণ শুরু হবে। প্রতিটি ওয়ার্ডে নূন্যতম ৬ দিন থেকে ১২ দিন পর্যন্ত স্মাট কার্ড বিতরণ করা হবে।ঞ্চ  কোন ওয়ার্ডের কোন এলাকার ভোটারদের কবে কার্ড দেওয়া হবে তা’ স্থানীয় কাউন্সিলর অফিসে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। ভোটাররা তাদের পুরাতন জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে সেই স্কুলে যাবেন এবং ১০ আঙুলের ছাপ দিয়ে স্মাট কার্ড নিয়ে আসবেন। সূত্রটি জানায়, ২০ জুলাই থেকে নগরীর সদর থানার ৯টি ওয়ার্ডে কার্ড বিতরণ শুরু হবে। সদর থানার ৯টি ওয়ার্ডের কার্যক্রম শেষ হবে ৩০ অক্টোবর। এরপর ১ নভেম্বর থেকে শুরু হবে দৌলতপুর থানার ১নং ওয়ার্ডের কার্ড বিতরণ কাজ। ১ থেকে ৬নং ওয়ার্ডে স্মার্ট কার্ড বিতরণ চলবে ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এরপর কার্ড বিতরণ করা হবে সোনাডাঙ্গা ও খালিশপুর থানায়। ১৭ ডিসেম্বর থেকে এপ্রিল মাস পর্যন্ত এই দুই থানার ১৫টি ওয়ার্ডে কার্ড বিতরণ করা হবে। তবে কমিশন থেকে জানা গেছে, খালিশপুর ও সোনাডাঙ্গা থানার অর্ন্তগত ওয়ার্ডগুলোর সম্ভাব্য তালিকা এগিয়ে নিয়ে আসার চিন্তা-ভাবনা করা হচ্ছে। কারণ আগামী বছরের প্রথমার্ধে কেসিসি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। সেটা হলে ফেব্রুয়ারির মধ্যেই এই থানায় কার্ড বিতরণ শেষ করা হবে।নির্বাচন কমিশন থেকে জানা গেছে, ২০ জুলাই বৃহস্পতিবার হ্যানে রেলওয়ে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ২১নং ওয়ার্ডের কার্ড বিতরণ শুরু হবে। শুক্রবার বন্ধ দিয়ে ২২ থেকে ২৭ তারিখ পর্যন্ত ২১নং ওয়ার্ডের ভোটারদের কার্ড দেওয়া হবে একই স্কুলে। ৩০ জুলাই থেকে নগরীর জিলা স্কুলে শুরু হবে ২২নং ওয়ার্ডের কার্ড বিতরণ। ৩০ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত এই ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকার প্রায় ১০ হাজার ৮৮১ জন কার্ড পাবেন। দু’দিন বিরতি দিয়ে ৮ আগস্ট থেকে ২৩নং ওয়ার্ডের কার্ড বিতরণ শুরু হবে। ৬ দিন ধরে সেন্ট জোসেফস স্কুলে ২৩নং ওয়ার্ডের কার্ড দেওয়া হবে।সূত্রটি জানায়, ১৬ থেকে ৩০ আগস্ট পর্যন্ত নিরালা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে দেওয়া হবে ২৪নং ওয়ার্ডের ভোটারদের কার্ড। ৩১ আগস্ট থেকে ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ঈদুল আযহার ছুটি। ৬ সেপ্টেম্বর থেকে ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পিটিআই স্কুলে দেওয়া হবে ২৭নং ওয়ার্ডের কার্ড। ২৭ থেকে ২৩ সেপ্টেম্বর ২৮নং ওয়ার্ডের কার্ড দেওয়া হবে পশ্চিম টুটপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে। ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে ২ অক্টোবর পর্যন্ত আলিয়া মাদ্রাসায় দেওয়া হবে ২৯নং ওয়ার্ডের কার্ড।
নগরীর রূপসা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ৪ থেকে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত দেওয়া হবে ৩০নং ওয়ার্ডের ভোটারদের কার্ড। ১৮ অক্টোবর থেকে ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত হাজী মালেক ইসলামিয়া ডিগ্রী কলেজে দেওয়া হবে ৩১নং ওয়ার্ডের ভোটারদের কার্ড। ওই দিন সদর থানার সব কার্ড বিতরণ শেষ হবে শুরু হবে দৌলতপুর থানা এলাকায় বিতরণ কাজ।১ নভেম্বর থেকে ৭ নভেম্বর পর্যন্ত ১নং ওয়ার্ডের ১৩ হাজার ৮৩৫ জনকে কার্ড দেওয়া হবে। ২নং ওয়ার্ডে কার্ড দেওয়া হবে ৯ থেকে ১৩ নভেম্বর পর্যন্ত। একই ভাবে ১৫ থেকে ২২ নভেম্বর তিন নং ওয়ার্ডে, ২৫ থেকে ২৯ নভেম্বর ৪নং ওয়ার্ডে, ২ থেকে ৫ ডিসেম্বর ৫নং ওয়ার্ডে এবং ৭ থেকে ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত ৬নং ওয়ার্ডে স্মার্ট বিতরণ করা হবে। স্মার্ট কার্ড বিতরণের লক্ষ্যে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাদের সাথে কেসিসি’র কাউন্সিলরদের এক মতবিনিময় সভা গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় নগর ভবনের শহীদ আলতাফ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। সিটি মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনি সভায় সভাপতিত্ব করেন।
সভায় খুলনার আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মুজিবর রহমান জানান, ২০ জুলাই থেকে খুলনা সদর থানা এলাকা থেকে শুরু করা হবে। নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডের সুবিধাজনক স্থানে একটি করে কেন্দ্র স্থাপন করা হবে। কেন্দ্রে ১০ আঙুলের ছাপ ও চোখের আইরিশের প্রতিচ্ছবি নেয়া হবে। এই পরিচয় পত্রের মাধ্যমে নাগরিকগণ সহজে ২০টিরও বেশী নাগরিক সেবা ও সুবিধাদি ভোগ করতে পারবেন।

watch price in bangladesh

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here